যাকাত (পর্ব-১)

যাকাত (পর্ব-১)
বিসমিল্লাহ। আলহা’মদুলিল্লাহ।
ওয়াস সালাতু ওয়াস সালামু আ’লা
রাসুলিল্লাহ।
যাকাত ইসলামের তৃতীয় রুকনঃ
রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আ’লাইহি
ওয়া সাল্লাম বলেছেন, “ইসলামের
রুকন বা ভিত্তি পাচটি বিষয়ের উপর
প্রতিষ্ঠিত। আর তা হচ্ছে, আল্লাহকে
এক বলে বিশ্বাস করা, সালাত
কায়েম করা, যাকাত আদায় করা,
রামাযানের সাওম পালন করা এবং
হজ্জ করা।” সহীহ মুসলিমঃ ১৮।

image

যাকাত আদায় করা ফরযঃ
আল্লাহ তাআ’লা বলেন, “(হে নবী!)
আপনি তাদের মালামাল থেকে
যাকাত গ্রহণ করুন যাতে করে
যাকাতের মাধ্যমে আপনি
তাদেররকে পবিত্র করতে এবং
তাদের সম্পদকে বরকতময় করতে
পারেন। আর (যারা যাকাত দিবে)
আপনি তাদের জন্য দোয়া করুন,
নিঃসন্দেহে আপনার দোয়া
তাদের জন্য সান্ত্বনা স্বরূপ। নিশ্চয়ই
আল্লাহ সবকিছুই শুনেন ও জানেন।”
সুরা আত-তাওবাহঃ ১০৩।
সুতরাং যাকাত দেওয়া ফরয আর এর
বিনিময়ে বান্দার আত্মা পবিত্র হয় ও
সম্পদ পবিত্র হয়ে তাতে আল্লাহর
বরকত লাভ করা যায়।
যাকাত দেওয়ার ফযীলতঃ
আল্লাহ তাআ’লা বলেন, “নিশ্চয়ই
যারা ইমান আনে এবং সৎকাজ করে,
সালাত কায়েম করে এবং যাকাত
দান করে, তাদের জন্যে রয়েছে
পুরষ্কার তাদের তাদের পালনকর্তার
পক্ষ থেকে। তাদের কোন ভয় নেই
এবং তাদের কোন দুঃখও
থাকবেনা।” সুরা আল-বাক্বারাহঃ
২৭৭।
শয়তানকে পরাজিত করার একটা
মাধ্যম হচ্ছে যাকাত আদায় করা।
রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আ’লাইহি
ওয়া সাল্লাম বলেছেন, “যখনই কোন
ব্যক্তি যাকাত আদায় করে সে এর
দ্বারা শয়তানের ৭০টি ষড়যন্ত্র ব্যর্থ
করে দেওয়া দেয়।” ইবনে খুজাইমাহ,
আহমাদঃ ৫/৩৫০, হাদীস সহীহ,
সিলসিলাহ সহীহা’হঃ ১২৬৮।
যাকাত না দেওয়ার শাস্তিঃ
রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আ’লাইহি
ওয়া সাল্লাম বলেছেন, “আল্লাহ
যাকে সম্পদ দান করেছেন, কিন্তু সে
এর যাকাত আদায় করেনি,
কিয়ামতের দিন তার সম্পদকে
(বিষের তীব্রতার কারণে)
টাকওয়ালা মাথা বিশিষ্ট বিষধর
সাপের আকৃতি দান করে তার গলায়
ঝুলিয়ে দেয়া হবে। সাপটি তার
মুখের দুই পাশে কমড়ে ধরে বলবে,
আমি তোমার সম্পদ, আমি তোমার
জমাকৃত মাল।” তারপর রাসুলুল্লাহ
সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া
সাল্লাম তিলাওয়াত করেন, “আল্লাহ
যাদেরকে সম্পদশালী করেছেন অথছ
তারা সে সম্পদ নিয়ে কার্পণ্য করছে,
তাদের ধারণা করা উচিত নয় যে,
সেই সম্পদ তাদের জন্য কল্যাণ বয়ে
আনবে, বরং উহা তাদের জন্য
অকল্যাণকর হবে। অচিরে কিয়ামত
দিবসে, যা নিয়ে কার্পণ্য করছে তা
দিয়ে তাদের গলদেশ শৃংখলাবদ্ধ
করা হবে।” সুরা আলে ইমরানঃ ১৮০।
সহীহ আল-বুখারীঃ ১৪০৩।
নিসাব কাকে বলা হয়?
কোন ব্যক্তির সম্পদ একটি নির্দিষ্ট
পরিমানের সমান বা বেশি হলে
এবং সেই সম্পদ পূর্ণ এক বছর তার কাছে
জমাকৃত থাকলে সেই সম্পদের উপরে
নিয়ম অনুযায়ী যাকাত দিতে হয়।
যেই নির্দিষ্ট পরিমান সম্পদ অতিক্রম
করলে যাকাত দেওয়া ফরয হয়, সেই
নির্দিষ্ট পরিমানকে ‘নিসাব’ বলা
হয়।
কোন সম্পদের ‘নিসাব’ কত?
স্বর্ণঃ
স্বর্ণের নিসাব হচ্ছে ২০ দিনার বা
৮৫ গ্রাম ওজনের স্বর্ণ, আমাদের
দেশীয় হিসাব অনুযায়ী ৭.৫ ভরি
স্বর্ণ। আবু দাউদঃ ১৫৭৩, শায়খ ইবনে
উষাইমিন, আল-মুমতিঃ ৬/১০৩।
রূপাঃ
রূপার নিসাব হচ্ছে ১৪০ মিসকাল
(দিরহাম) অর্থাৎ ৫৯৫ গ্রাম, আমাদের
দেশীয় হিসাব অনুযায়ী ৫২.৫ ভরি
রূপা। সহীহ বুখারীঃ ১৪৫৯, সহীহ
মুসলিমঃ ৯৭৯, শায়খ ইবনে উষাইমিন।
ক্যাশ বা নগদ টাকাঃ
ক্যাশ টাকার নিসাব হচ্ছে রূপা
অথবা স্বর্ণের নিসাবের সমান।
বর্তমানে রূপা ও স্বর্ণের নিসাবের
মূল্যের মাঝে অনেক বেশি পার্থক্য।
এ ব্যপারে সৌদি আরবের স্থায়ী
ফতোয়া বোর্ডের ফতোয়া হচ্ছেঃ
নিসাব স্বর্ণ ও রূপার মাঝে যেটাকে
ধরলে গরীবেরা বেশি উপকৃত হবে,
সেটাকেই ধরা উচিত। আল-লাজনাহ
আদ-দাইয়ি’মাহঃ ৯/২৪৬।
বর্তমানে ৭.৫ ভরি সোনা থেকে
৫২.৫ ভরি রূপার দাম অনেক কম। তাই
ক্যাশ টাকার জন্য উত্তম হচ্ছে ৫২.৫
ভরি রূপার দামকেই ‘নিসাব’
হিসেবে ধরা।
ইন্টারনেট থেকে প্রাপ্ত তথ্য
অনুযায়ী, ২১ ক্যারেট প্রতি গ্রাম
রূপার (সৌদি স্ট্যান্ডার্ড অনুযায়ী)
মূল্য ৪৬.৮৭ টাকা ধরে রূপার নিসাব এর
মূল্য হচ্ছেঃ ৫৯৫ X ৪৬.৮৭ = ২৭,৮৮৭
টাকা।
সুতরাং, কারো কাছে সর্বনিম্ন
২৭,৮৮৭ পরিমান টাকা এক বছর ধরে
জমা থাকলে ঐ টাকার উপরে
যাকাত দেওয়া তার জন্য ফরয হবে।
বিঃদ্রঃ আপনারা স্থানীয়
মার্কেটে খোজ নিয়ে দেখুন,
আমাদের দেশে যেই ক্যারেটের
রূপা ব্যবহার করা হয় তার দাম কত এবং
সেই অনুযায়ী হিসাব করে নিবেন ইন
শা’ আল্লাহ।
যাকাতের টাকা কিভাবে হিসাব
করতে হবে?
কারো কাছে যদি ৭.৫ ভরি বা তার
থেকে বেশি পরিমান স্বর্ণ অথবা
৫২.৫ ভরি বা তার থেকে বেশি
পরিমান রূপা পূর্ণ এক চন্দ্র বছর জমা
থাকে তাহলে তাকে সেটার মোট
মূল্যের ৪০ ভাগের ১ ভাগ বা, শতকরা
২.৫ টাকা (প্রতি ১০০ টাকায় ২.৫
টাকা) হারে যাকাত দিতে হবে।
উদাহরণঃ যেমন ধরুন, কারো কাছে ১০
ভরি স্বর্ণ আছে। এটা নিসাবের
পরিমানের থেকে বেশি, তাই
তাকে যেইভাবে হিসাব করতে
হবেঃ
১০ X প্রতি ভরি স্বর্ণের মূল্য X ০.০২৫ =
যেই টাকা আসবে সেই পরিমান
টাকা তাকে যাকাতের
খাতগুলোতে ব্যয় করতে হবে।
অনুরূপভাবে রূপার বা ক্যাশ টাকার
যাকাত হিসাব করতে হবে। মোট মূল্য
X ০.০২৫ =…টাকা।
____________________________________

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s